কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে আলোচনা

0
189
কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে আলোচনা
কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে আলোচনা

আসসালামু আলাইকুম। আমার প্রিয় পাঠক বন্ধুরা আপনারা সবাই কেমন আছেন? আশা করি আল্লাহর রহমতে আপনারা সবাই ভালো আছেন। বন্ধুরা আমি আপনাদের কে আজ কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো। যে শিক্ষা ব্যবস্থাটা কানাডা দেশ কে নিয়ে। কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা টা কি রকম তার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা নিচে তুলে ধরা হলো-

কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে আলোচনা

কানাডার মানুষ প্রায় ৯৯ ভাগ শিক্ষিত। গুনগত শিক্ষা ব্যবস্থার কথা বলতে গেলে প্রথমে আসবে কানাডার কথা। কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা এতভালো যে, তা সুপার পাওয়ার হিসাবে বলা যায়। সারা বিশ্বে ২৬ হাজারের বেশী বিশ্ব বিদ্যালয় রয়েছে। বিশ্বে প্রায় এক হাজার বিশ্ব বিদ্যালয় আছে যার শিক্ষা ব্যবস্থা সবার শীর্ষে, তার মধ্যে কানাডাতে আছে ২৬টি বিশ্ব বিদ্যালয়। আজকে আমরা আলোচনা করব কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে।

জন্মগত ভাবে কানাডিয়ারা আমাদের চেয়ে অনেকটাই মার্জিত ও আরাম প্রিয়। তাদের শিক্ষা শুরু হয় অনেক ছোট থেকেই। শিশুদের শিক্ষা শুরু হয় কেজি / কিন্ডার গার্ডেন থেকে এবং তাদের বয়স যখন ৪-৫ বছর হয় তখন থেকে তারা শিক্ষা শুরু করে। তাদের বয়স যখন ৬ বছর তখন তাদের গ্রেড-১ এর পড়াশুনা শুরু হয় এবং তাদের এই পড়াশুনা বাধ্যতামূলক।

কানাডিয়ার বাচ্চারা যখন গ্রেড-১ এর পড়াশুনা শেষ করে তারপর চলে যায় গ্রেট-১২ তে। সেখানে তারা প্রায় ১৭-১৮ বছর বয়স পর্যন্ত পড়তে থাকে। আমরা যেটাকে বলি সেকেন্ডারি বা হাই স্কুল। ঐ দেশে আবার অনেকেই গ্রাজুয়েশন সার্টিফিকেটও বলে থাকে।

পোস্ট সেকেন্ডারি

তারা হাই স্কুল বা সেকেন্ডারি স্কুল শেষ করার পর তারা চলে যায়, পোস্ট সেকেন্ডারিতে। কানাডায় প্রায় ১০ টি প্রদেশ আছে । শিক্ষা ব্যবস্থাটা একক প্রদেশে একক রকম। কিন্তু তাদের হাই স্কুল বা সেকেন্ডারি স্কুল বাধ্যতা মূলক। এই শিক্ষা তাদের প্রত্যেকে নিতে হবে। কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থায় একজন ছাত্রকে বছরে কমপক্ষে ১৯০ দিন উপস্থিত হতে হবে। তবে তারা ১৪ দিন অনুপস্থিত থাকতে পারে বিশেষ কারণে। তারা বিশেষ কোন কারণ ছাড়া কোন ছুটি কাটাতে পাড়বে না।

কানাডায় ভর্তির সেশন শুরু হয় সেপ্টেম্বর মাসে এবং শেষ হয় জুন মাসে। তবে দুটি প্রদেশে একটু ব্যক্তিক্রম সেটা হল কলোম্বিয়া ও আলবার্ড প্রদেশ।

কানাডার শিক্ষা ব্যবসস্থাকে তিন শ্রেনীতে ভাগ করা হয়েছে। প্রথম ভাগ, প্রাইমারী এডুকেশন বা প্রাথমিক শিক্ষা। দ্বিতীয় ভাগ, সেকেন্ডারী এডুকেশন বা হাই স্কুল। তৃতীয় ভাগ, পোস্ট সেকেন্ডারী এডুকেশন বা উচ্চ মাধ্যমিক।

প্রাইমারী এডুকেশন বা প্রাথমিক শিক্ষাঃ

প্রাইমারী এডুকেশন বা প্রাথমিক শিক্ষা বলতে বোঝানো হয়েছে যা শুরু হয় গ্রেড-১ থেকে গ্রেড-৮ পর্যন্ত অবহ্যত থাকে। এবং যাদের বয়স ৬-১৮ বছর পর্যন্ত। এটাকে প্রাইমারী এডুকেশন বা প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা বলে হয়ে থাকে। কানাডায় প্রাইমারী এডুকেশন বা প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা ফ্রি করা হয়েছে।

সেকেন্ডারী এডুকেশন বা হাই স্কুলঃ

সেকেন্ডারী এডুকেশন বা হাই স্কুল কে বোঝানো হয়েছে এক কথায় যাকে আমরা মাধ্যমিক স্কুল বলে জানি। যা শুরু হয় গ্রেড-৯ থেকে গ্রেড-১২ পর্যন্ত। যে ছাত্র-ছাত্রীর বয়স সাধারণত ১৫-১৮ বছর পর্যন্ত। এটাকেই সেকেন্ডারী এডুকেশন বা হাই স্কুল বলা হয়। সেকেন্ডারী এডুকেশন বা হাই স্কুল এই শিক্ষা ব্যবস্থাও ফ্রি করা হয়েছে।

পোস্ট সেকেন্ডারী এডুকেশন বা উচ্চ মাধ্যমিকঃ

সফল ভাবে যে ছাত্র-ছাত্রীরা সেকেন্ডারী বা হাই স্কুল পাস করে তারাই পোস্ট সেকেন্ডারী এডুকেশন বা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার জন্য পড়তে পারে। যাকে আমরা বলে থাকি উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা। যাদের বয়স ২৫-৬৪ বছর তাদের কোন না কোন কলেজের বা বিশ্ব বিদ্যালয়ের ড্রিগ্রি আছে। এই ড্রিগ্রি প্রায় কানাডার ৯৯% লোকেরেই আছে।

কানাডার মেয়েদের কোন না কোন একটি ব্যচেলর ড্রিগ্রি আছে যাদের বয়স ২৪-৩৪ বছর। কানাডার সাক্ষরতার হার প্রায় ৯৯%। ১৫ বছরের বেশি যাদের বয়স তারা প্রত্যেকেই পড়তে ও লিখতে পাড়ে। কানাডার যে টোটাল জিডিপি GDP (গ্রোস ডমেস্টিক প্রোডাক্ট) (১.৭৮৯ ট্রিলিয়ন ডলার) যার ৬.২% খরচ বরাদ্দ দেওয়া হয় শিক্ষা খাতে।

দ্য অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (ওইসিডি) যে ৩৬টি দেশ আছে, তারমধ্যে শিক্ষা খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দের জন্য কানাডা ১ম স্থান দখল করে আছে।

কানাডাতে ১৫ হাজারের বেশি স্কুল আছে। তার মধ্যে এলিমেন্টারি স্কুল প্রায় ১০ হাজার ১০০টি। সেকেন্ডারি স্কুল প্রায় ৩ হাজার ৪০০টি। আর এলিমেন্টারি ও সেকেন্ডারি কম্বাইন্ড স্কুলের সংখ্যা প্রায় ২ হাজারের বেশি। প্রতিটি স্কুলে প্রায় ৩৫০ জন শিক্ষার্থী পড়াশোনা করে। বর্তমানে ৫০ লাখ শিক্ষার্থী এলিমেন্টারি ও সেকেন্ডারি স্কুলে পড়াশোনা করছে। কানাডাতে বর্তমানে ৭ লাখ ৫০ হাজারের বেশি শিক্ষক ও অধ্যাপক আছেন।

পোস্ট সেকেন্ডারী এডুকেশন

কানাডাতে ১৮৩টি সরকারী কলেজ ও ১৬৩টি প্রাইভেট ও সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। পোস্ট সেকেন্ডারি বা বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছে প্রায় ২০ লক্ষ ছাত্র-ছাত্রী। আর এই সব ছাত্র-ছাত্রীর বাৎসরিক ফি মাত্র ৬ থেকে ৭ হাজার ডলার। পোস্ট সেকেন্ডারী এডুকেশন বা উচ্চ মাধ্যমিক ছাত্র-ছাত্রীর জন্য লো প্রোগ্রাম চালু আছে।

আর এই লো নিয়ে পড়াশুনা করে থাকেন প্রায় ৩ লক্ষ ৫০ হাজার ছাত্র-ছাত্রী। এছাড়া কানাডা সরকারের মিলেনিয়াম স্কলারশিপ ফাউন্ডেশন প্রোগ্রাম আছে, ১ লক্ষ মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ৩৫০ মিনিয়ন বাজেট রাখা হয়েছে। এ দেশের সরকার এমন ছাত্র-ছাত্রীর বাবা-মায়ের জন্য এডুকেশন সেভিংস প্রোগ্রাম চালু করেছে।

কানাডার মানুষ শতকরা প্রায় ৬৭.৬% ইংলিশে কথা বলে থাকে। ফ্রেঞ্চ ভাষায় কথা বলে ১৩.৩%। ইংলিশ ও ফ্রেঞ্চ ভাষায় কথা বলে প্রায় ১৭.৪%। মজার বিষয় হল কানাডায় একক কোন শিক্ষা মন্ত্রী নেই। কানাডায় প্রাদেশিক বা আঞ্চলিক শিক্ষা মন্ত্রী আছেন। কানাডা, দ্য কাউন্সিল অব মিনিস্টার্স, কানাডা গঠন করা হয় ১৯৬৭ সালে। সেখানে আঞ্চলিক ও প্রাদেশিক মন্ত্রী গঠন করা হয়।

কানাডায় ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট-

কানাডায় ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টের সংখ্যাও খুব কম। কানাডিয়ান ব্যুরো ফর ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টের তথ্যমতে, কানাডাতে বর্তমানে ৫ লাখের কাছাকাছি ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টের পড়াশোনা করছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে কানাডায় পড়াশুনা করতে আসে।

ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টের ২৫% চায়না কানাডায় পড়াশুনা করতে আসে। ভিয়েতনাম সবচেয়ে বেশি কানাডায় পড়াশুনা করে যাচ্ছে শতকরা প্রায় ৮৯%। বাংলাদেশ ৪১%, ইরান ৪৫% ও ভারত ৬৩%। সমীক্ষায় দেখা যায় যে, যারা কানাডায় পড়াশুনা করার জন্য যায় তারা ৫১% শিক্ষার্থী নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করে।

ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টরা কানাডার বিরাট এক ভুমিকা পালন করে আসছে অর্থনৈতিক দিকটা। ইমিগ্রেশন রিফিউজি ও সিটিজেনশিপ অব কানাডার তথ্যমতে, প্রায় ১২.৮ বিলিয়ন ডলার উপার্জিত হয়ে থাকে ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশন সেক্টর থেকে, যা তাদের অর্থনীতির জন্য মাইল ফলক হিসেবে কাজ করে থাকে।

কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা সু-দুরপ্রসারি হওয়ার কিছু কারণ তুলে ধরা হলঃ

১। কম্পিউটার শিক্ষা।
২। বৈজ্ঞানিক শিক্ষা পদ্ধতি।
৩। বিশ্বমানের ভাষা শিক্ষা
৪। স্বেচ্ছাসেবী শিক্ষা।
৫। বৈচিত্র্যময় এবং ব্যাপক পাঠ্যক্রম।
৬। সাংস্কৃতিক এবং বন্ধুত্বপূর্ণ শিক্ষামূলক পরিবেশ।
৭। ওয়ার্ল্ড ক্লাস থিসিস সেন্টার অ্যান্ড পাবলিকেশন্স।
৮। ইথ অ্যাপার্টমেন্ট এবং অনুপ্রেরণা শিক্ষা
৯। খোলামেলা ক্যাম্পাস ও প্রকৃতি সমৃদ্ধ দূষণমুক্ত পরিবেশ।
১০। প্রাদেশিক ও আঞ্চলিক শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও মনিটরিং।
১১। প্রায় ৫৯ বিলিয়ন ডলারের শিক্ষা বাজেট।
১২। থিউরিটিক্যাল ও প্র্যাকটিক্যাল এডুকেশন অ্যাপ্রোচ।

তো প্রিয় বন্ধুরা, কানাডার শিক্ষা ব্যবস্থা পোষ্ট টি আপনাদের কেমন লাগল তা আমাদেরকে জানাবেন। সকলের সু-স্বাস্থ কামনা করে আজকে এই পর্যন্ত। আপনি আরো পড়তে পারেন কানাডায় কম খরচে পড়াশুনা যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে। আল্লাহ হাফেজ